১০ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১:৩৪

সৌম্যদের বড় টার্গেট দিচ্ছে পাকিস্তান

ক্রীড়া প্রতিবেদক : মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে শনিবার সকালে টস জিতে পাকিস্তানকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান বাংলাদেশের অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

বোলিংয়ে বাংলাদেশের শুরুটা হয় ভালো। ষষ্ঠ ওভারে উমাইর ইউসুফকে (৪) ফিরিয়ে ১৮ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন সুমন খান।

অষ্টম ওভারে আরেক ওপেনার হায়দার আলীকেও ফেরান তরুণ পেসার সুমন। ২৩ বলে ৩ চার ও এক ছক্কায় ২৬ রান করা হায়দারের ক্যাচ নেন নাঈম শেখ। ৪১ রানের মধ্যে পাকিস্তান হারায় দুই ওপেনারকে।

এরপর অবশ্য প্রতিরোধ গড়েন রোহাইল নাজির ও ইমরান রফিক। তৃতীয় উইকেট জুটিতে এই দুজন যোগ করেন ১১৭ রান। ৮৮ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় ৬২ রান করা রফিককে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন অফ স্পিনার মেহেদী হাসান।

নাজির তুলে নেন সেঞ্চুরি। তাকে থামান হাসান মাহমুদ। ১১১ বলে ১২ চার ও ৩ ছক্কায় নাজির করেন ১১৩ রান। ৪৫ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২৪৫ রান।

টুর্নামেন্টের প্রথম সেমিফাইনালে ভারতকে ৩ রানে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে পাকিস্তান। আর দ্বিতীয় সেমিফাইনালে আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো এই টুর্নামেন্টের ফাইনালের টিকিট পায় বাংলাদেশ। ফাইনালের আগে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের কেউ হারেনি, জিতেছে নিজেদের চারটি করে ম্যাচেই।

মূলত অনূর্ধ্ব-২৩ টুর্নামেন্ট হলেও এর বেশি বয়সি চারজন খেলোয়াড় খেলানোর নিয়ম আছে। বাংলাদেশের হয়ে খেলছেন তাই সৌম্য সরকার। টুর্নামেন্টে ব্যাটে-বলে দারুণ ফর্মেও আছেন সৌম্য। খেলছেন ইয়াসির আলী রাব্বী, মেহেদী হাসানও ।

প্রকাশ :নভেম্বর ২৩, ২০১৯ ১২:৫১ অপরাহ্ণ