১০ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১:৩৯

নির্বিচারে গাছ কেটে ফেলা সেই নারী আটক

সাভার সংবাদদাতা : সাভারে ছাদবাগানের গাছ কেটে সাবাড় করার সঙ্গে জড়িত সেই নারীকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার সকালে সাভার সিআরপি রোড এলাকা থেকে ওই নারীকে আটক করা হয়েছে।

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার থানার ডিউটি অফিসার সাব ইন্সপেক্টর পারভীন।

এর আগে, গতকাল সাভারের সিআরপি রোড এলাকায় একটি বাসাবাড়ির ছাদবাগানের গাছ কেটে ফেলেন এক নারী। এসময় গাছের মালিক সুমাইয়া নামে এক নারী ফেসবুক লাইভে গাছ বাঁচানোর অসহায় আকুতি জানান। একপর্যায়ে তাকে দা দিয়ে আঘাত করতে উদ্যত হন সব গাছ কেটে ফেলা ওই নারী।

সুমাইয়া তার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের লাইভে বলেন, ‘কখনো কি শুনছেন মানুষ গাছ অপছন্দ করে? গাছ পরিবেশ নষ্ট করে? এই মহিলার গাছ পছন্দ না। তার বক্তব্য আমাদের গাছ ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে ফেলছে। তাই এই মহিলা আমাদের সব গাছ কেটে ফেলছে। কি অপরাধ ছিল গাছের? কি অপরাধ ছিল? কেউ বলতে পারবেন?’

ফেসবুক লাইভে তিনি আরো বলেন, ‘আমার মা গাছ অনেক পছন্দ করে, তাই ছাদের এক কোণায় আমরা কিছু গাছ লাগিয়েছিলাম। আর এই মহিলা আমাদের সাথে শত্রুতা করে আমাদের লাগানো গাছগুলো কেটে ফেলল। এই বিল্ডিংয়ে আমরা ২টা ফ্ল্যাট কিনেছি। সবাই যার যার ক্রয়কৃত ফ্ল্যাটে থাকে। ছাদে সবারই অধিকার আছে। ছাদের একটা কোণায় আমরা আমাদের অধিকার থেকে কিছু গাছ। কারণ আমরা ভাবতেও পারিনি গাছ মানুষ অপছন্দ করতে পারে। গাছ তো সৌন্দর্য বাড়ায়। আর তারা বলে আসছে আমাদের গাছ নাকি ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে দিছে।’

‘তারা অকারণে অন্যায়ভাবে আমাদের জীবন্ত এবং ফল ধরন্ত গাছগুলি কেটে ফেললো। আবার তার ছেলে কিছু ১০/১২ জন মাস্তান নিয়ে আসছে আমাদের ওপর হামলা করার জন্য। আমাদের একটাই অপরাধ আমরা গাছ ভালোবাসি। আমরা শখ করে গাছ লাগিয়েছিলাম। আমরা তো অন্যের জায়গায় গাছ লাগাইনি। আমরা আমাদের অধিকার থেকে গাছ লাগাইছিলাম। আমার মা এই গাছগুলো নিজের সন্তানের মত যত্ন করে। আমরা গাছগুলো নিজের সন্তানের মতো ভালোবাসতাম। মানুষ কীভাবে এতটা নিচে নামতে পারে? গাছ তো তাদের কোনো ক্ষতি করেনি। পুরা ছাদই তো ফাঁকা। এই মাগরিবের আযানের সময়, ওনার মাথায় সুন্নতি হিজাব কিভাবে পারলো এই ধরন্ত গাছগুলি কেটে ফেলতে। এর হয়তো কোনো বিচার হবে না। তবে আল্লাহর কাছে বিচার দিলাম। আল্লাহই বিচার করবে।’

প্রকাশ :অক্টোবর ২৩, ২০১৯ ১:৪৩ অপরাহ্ণ