২৯শে জুন, ২০২২ ইং | ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:৩২

স্পাইডার-ম্যানকে নিয়ে দ্বন্দ্বের অবসান

বিনোদন ডেস্কঃ স্পাইডার-ম্যানকে নিয়ে সনি পিকচার্স ও মার্ভেল স্টুডিওর মধ্যে দ্বন্দ্বের অবসান হয়েছে।গতকাল শুক্রবার সনি পিকচার্স ও ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিওস যৌথভাবে স্পাইডার-ম্যান সিরিজের নতুন সিনেমার ঘোষণা দিয়েছে। পাশাপাশি স্পাইডার-ম্যান: হোম কামিং সিরিজের তৃতীয় সিনেমাটির প্রযোজনায় থাকছেন কেভিন ফাইগি।

নতুন সিনেমাটিতেও স্পাইডার-ম্যান চরিত্রে দেখা যাবে টম হল্যান্ডকে। ২০২১ সালের ১৬ জুলাই এটি মুক্তি পাবে। শুধু তাই নয়, মার্ভেলের অন্য সিনেমাগুলোতে হাজির হবেন স্পাইডার-ম্যান। সংবাদমাধ্যমে ভ্যারাইটি এ তথ্য জানিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে কেভিন ফাইগি বলেন, আমি খুবই শিহরিত মার্ভেল সিনেমাটিক ইউনিভার্সের সঙ্গে স্পাইডার-ম্যানের পথচলা অব্যাহত থাকছে। আমি এবং মার্ভেল স্টুডিওর অন্য সদস্যরা খুবই উচ্ছ্বসিত কারণ এটি নিয়ে আবার কাজ করব।

তিনি আরো বলেন, স্পাইডার-ম্যান খুবই শক্তিশালী আইকন ও হিরো, যার গল্প বিশ্বের সব বয়সি দর্শক জানেন। সে এমন একজন সুপারহিরো, যে সিনেমাটিক ওয়ার্ল্ডকে ছাড়িয়ে গেছে। সনি পিকচার্স স্পাইডার-ভার্স সিনেমা নির্মাণ চালিয়ে যাবে। হয়তো অনেক বিস্ময় অপেক্ষা করছে।

এর আগে স্পাইডার-ম্যান চরিত্রটি নিয়ে একটি প্রস্তাবে ওয়ার্ল্ড ডিজনি মালিকানাধীন মার্ভেল স্টুডিও এবং সনি এন্টারটেইনমেন্ট দুই প্রতিষ্ঠানই অসম্মতি জানায়। ডিজনি চাইছিলেন না স্পাইডার-ম্যান ফ্রাঞ্চাইজির কোনো সিনেমাতে প্রযোজক হিসেবে কেভিন ফাইগির নাম থাকুক। মূলত সিনেমাগুলোর লভ্যাংশ ভাগাভাগি নিয়েই এই সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। ডিজনির এমন সিদ্ধান্তের ফলে স্পাইডার-ম্যান সিরিজটি বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়। এছাড়া দ্বন্দ্ব অব্যাহত থাকলে মার্ভেলের অন্যান্য সিনেমাতেও স্পাইডার-ম্যান চরিত্রটি দেখা যেত না।

প্রকাশ :সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯ ২:০১ অপরাহ্ণ