২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:০৪

হাডার্সফিল্ডকে হারিয়ে হাল ধরে রাখল লিভারপুল

খেলা ডেস্ক

আজকের আগে ২০১৮-১৯ প্রিমিয়ার লিগের আর বাকি ছিল মাত্র ৩টি ম্যাচ। গত সপ্তাহে টটেনহাম হটস্পার এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে হারিয়ে বল এখনও ম্যানচেস্টার সিটিরই কোর্টে। কিন্তু তাই বলে হাল ছাড়ছে না তাদের চেয়ে ১ পয়েন্টে পিছিয়ে থাকা লিভারপুল। অ্যানফিল্ডে আজ হাডার্সফিল্ডকে ৫-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়ে নিজেদের কাজটা সেরে রেখেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। আজকের জয়ে ৩৬ ম্যাচে লিভারপুলের সংগ্রহ ৯১ পয়েন্ট, এক ম্যাচ কম খেলা সিটির সংগ্রহ ৮৯।

আজকের ম্যাচের আগে লিভারপুল এবং হাডার্সফিল্ডের পয়েন্টের ব্যবধান ছিল ৭৪। মাঠের খেলায়ও বোঝা গেল; কেন লিভারপুল এখনও টিকে আছে শিরোপাদৌড়ে, আর কেন গত মাসেই চ্যাম্পিয়নশিপে অবনমন নিশ্চিত হয়েছে হাডার্সফিল্ডের। অ্যানফিল্ডে হাডার্সফিল্ড কিছু বুঝে উঠার আগেই লিড নেয় ক্লপের দল। মাত্র ১৫ সেকেন্ডে রক্ষণে ভুলে বল পেয়ে নবী কেইটাকে পাস বাড়ান মোহামেদ সালাহ। ডানপায়ের মাপা শটে প্রিমিয়ার লিগ ইতিহাসে লিভারপুলের দ্রুততম গোল করতে ভুল করেননি কেইটা। এমন বিধ্বংসী শুরুর পর আর পেছনে ফিরতে হয়নি লিভারপুলকে।

২৩ মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সাদিও মানে। বাঁ-প্রান্ত থেকে অ্যান্ডি রবার্টসনের নিখুঁত ক্রসে হেড করে গোল করেন তিনি। মানের পর গোল উৎসবে যোগ দেন সালাহও। প্রথমার্ধের একেবারে ৪৫ মিনিটে রাইটব্যাক ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আর্নল্ডের পাস থেকে চিপ করে ২০১৮-১৯ প্রিমিয়ার লিগে প্রথম ফুটবলার হিসেবে ২০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করলেন তিনি। দুর্দান্ত এক প্রথমার্ধের পর আগামী সপ্তাহে বার্সেলোনার বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনাল প্রথম লেগের কথা ভেবে কিছুটা গা ছাড়া দিয়েই খেলেছে লিভারপুল। কিন্তু তারপরও ব্যবধান বাড়াতে কোনও সমস্যাই হয়নি তাদের।

এবারও হাডার্সফিল্ডের হন্তারকের ভূমিকায় ছিলেন সালাহ-মানেই। ৬৬ মিনিটে জর্ডান হেন্ডারসনের ক্রসে হেড করে সালাহর পর দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে এবারের প্রিমিয়ার লিগে ২০ গোল করলেন মানে। ম্যাচের ৭ মিনিট বাকি থাকতে হাডার্সফিল্ডের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন সালাহই। ৮৩ মিনিটে রবার্টসনের নিচু ক্রসে পায়ের আলতো টোকায় বল জালে পাঠান সালাহ। লিভারপুলের হয়ে ম্যাচের ‘সেঞ্চুরি’ পূরণের দিনটা জোড়া গোলেই স্মরণীয় করে রাখলেন তিনি। লিভারপুলও সেরে নিল বার্সা মহড়া।

বার্নলির বিপক্ষে সিটির ম্যাচের আগ পর্যন্ত প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকবে লিভারপুলই। অবশ্য বার্নলির মাঠে সিটির ম্যাচটি তেমন সহজ নাও হতে পারে। ‘ক্ল্যারেট’ ম্যানেজার শন ডাইস লিভারপুল ভক্ত, তার উপর আরও এক চটকদার পরিসংখ্যান স্বপ্ন দেখাচ্ছে ‘কপাইট’দের। প্রিমিয়ার লিগে যে কয় মৌসুমে খেলেছে বার্নলি, প্রতিবারই অন্তত একবার সেবারের চ্যাম্পিয়নদের হারিয়েছে তারা। ২০১৪-১৫ মৌসুমে বার্নলির মাঠেই হেরেছিল সিটি। ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি হবে কি?

প্রকাশ :এপ্রিল ২৭, ২০১৯ ৮:৩২ পূর্বাহ্ণ